বিজ্ঞানকে ভিত্তি করেই জাতীয় উন্নয়ন কার্যক্রম

বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি মন্ত্রী স্থপতি ইয়াফেস ওসমান বলেছেন, বিজ্ঞানের উন্নয়ন ও প্রসার ছাড়া জাতীয় উন্নয়ন সম্ভব নয়। সে জন্য বিজ্ঞানকে ভিত্তি করেই জাতীয় উন্নয়ন কার্যক্রম পরিচালিত হচ্ছে।

বুধবার রাজধানীর আগারগাঁওয়ে জাতীয় বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি জাদুঘরের ৫০ বছর পূর্তি উদযাপন উপলক্ষে জাদুঘর মিলনায়তনে আয়োজিত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। সুবর্ণজয়ন্তী পালন উপলক্ষে বিভিন্ন কর্মসূচির সমাপ্তি, পুরস্কার বিতরণ ও আলোচনা সভা হয়।

মন্ত্রী বলেন, ছাত্র-ছাত্রী ও তরুণ প্রজন্মের মাঝে বিজ্ঞানমনস্কতা বৃদ্ধির জন্য এ জাদুঘরকে বিশ্বমানের, দৃষ্টিনন্দন ও সমৃদ্ধ জাদুঘরে পরিণত করার উদ্যোগ নেয়া হয়েছে। বর্তমান বিজ্ঞান জাদুঘরের স্থলে নির্মিত হবে বিশ্বমানের আধুনিক এ জাদুঘর।

জাতীয় বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি জাদুঘর বিজ্ঞানমনস্ক জাতি গঠনে নিয়োজিত বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি মন্ত্রণালয়ের একটি প্রতিষ্ঠান। ১৯৬৫ সালে এক নির্বাহী আদেশের মাধ্যমে এটি আত্মপ্রকাশ করে ও আনুষ্ঠানিক যাত্রা শুরু করে।

সুবর্ণজয়ন্তী পালনের জন্য প্রথম পর্যায়ে দেশব্যাপী ৬৪টি জেলায় মিউজু বাসের মাধ্যমে বিজ্ঞান প্রদর্শনী ও আকাশ পর্যবেক্ষণ এবং মুভি বাসের মাধ্যমে ৬ডি মুভি প্রদর্শনী, শিক্ষক, অভিভাবক ও শিক্ষার্থীদের সমন্বয়ে সেমিনার অনুষ্ঠিত হয়।

গত বছরের ১৭ নভেম্বর চট্টগ্রাম জেলায় বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি মন্ত্রী স্থপতি ইয়াফেস ওসমান এসব কর্মসূচির উদ্বোধন করেন। ৬ মাসব্যাপী কর্মসূচির দ্বিতীয় ধাপে কেন্দ্রীয় পর্যায়ে ৫ দিনব্যাপী বিভিন্ন কর্মসূচি শুরু হয় গত শনিবার। এ ৫ দিনে তরুণ বিজ্ঞানীদের উদ্ভাবনী প্রদর্শন, বিজ্ঞান বিষয়ক সেমিনার, স্মৃতিচারণ, বিজ্ঞান বিষয়ক কুইজ ও প্রতিযোগিতা এবং সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান আয়োজিত হয়।

বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি জাদুঘরের মহাপরিচালক স্বপন কুমার রায়ের সভাপতিত্বে সমাপনী অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন জাতীয় বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি জাদুঘরের সিনিয়র কিউরেটর মো. বদিয়ার রহমান, বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি মন্ত্রণালয়ের দায়িত্বপ্রাপ্ত সচিব মো. আনোয়ার হোসেন, পরমাণু শক্তি নিয়ন্ত্রণ কর্তৃপক্ষের চেয়ারম্যান ড. নঈম চৌধুরী, বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি জাদুঘরের প্রতিষ্ঠাতা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ড. এনামুল হক এবং জাদুঘরের সাবেক পরিচালক ড. মোবারক আলী আখন্দ।

পরে মন্ত্রী স্থপতি ইয়াফেস ওসমান উদ্ভাবনী প্রদর্শন এবং বিজ্ঞান বিষয়ক কুইজ ও প্রতিযোগিতায় বিজয়ীদের মাঝে পুরস্কার ও সনদ বিতরণ করেন। বিজ্ঞান বিষয়ক নাটিকা ও মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের মাধ্যমে সুবর্ণজয়ন্তী পালনের কর্মসূচি শেষ হয়।

Share

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Facebook Like Box

SuperWebTricks Loading...